‘করোনার ওষুধ’ ভেবে ইরানে অ্যালকোহল পানে সাত শতাধিক মানুষের মৃত্যু

গত দেড় মাসে ইরানে ভ্রান্ত ধারণার বশবর্তী হয়ে বিষাক্ত মিথানল অ্যালকোহল পান করার পর ৭২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের ধারণা ছিল অ্যালকোহল পান করলে করোনাভাইরাসের হাত থেকে বাঁচা যাবে। ইরানের জাতীয় আশুমৃত্যু পরীক্ষক কর্তৃপক্ষের প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা এ তথ্য জানিয়েছে। করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার পর গত ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত এসব প্রাণহানি হয়। অথচ গত বছর অ্যালকোহল পান করে মৃত্যু হয়েছিল ৬৬ জনের। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে জীবাণুনাশক কিংবা অ্যালকোহলযুক্ত হ্যান্ড রাব ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তবে এ নিয়ে বিভিন্ন দেশে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়েছে। এসব গুজবের একটি হলো অ্যালকোহল পান করলে করোনাভাইরাস ঠেকানো যাবে। আর সে গুজবের ফাঁদে পা দিয়ে ইরানে সম্প্রতি অ্যালকোহল পান করে মৃত্যুর হার বাড়তে দেখা গেছে। ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কিয়ানুস জাহানপুর জানিয়েছেন, ৫ হাজার ১১ জন বিষাক্ত মিথানল অ্যালকোহল পান করে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তিনি বলেন, প্রায় ৯০ জনের চোখে সমস্যা দেখা দিয়েছে। মিথানল অ্যালকোহল বিষাক্ত উপাদানে তৈরি। এটি সরাসরি পান করা বা ঘ্রাণ নেওয়া যায় না। সরাসরি পান করলে তা শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের কার্যক্ষমতা কমিয়ে দেয় এবং মস্তিষ্কেরও ক্ষতি করে। তবে ইথানল অ্যালকোহল ক্ষিত পরিষ্কার করতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। ইথানলকে মিথানলের থেকে আলাদা করে চেনাতে উৎপাদনকারীদেরকে মিথানলের সঙ্গে কৃত্রিম রঙ মেশানোর নির্দেশ দিয়ে থাকে ইরান সরকার। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। উৎপত্তিস্থল চীনে ৮৩ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হলেও সেখানে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমে গেছে। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশে এই ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে। চীনের বাইরে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ১৩ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ১১ মার্চ দুনিয়াজুড়ে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।  জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত ১৮৫টি দেশ ও অঞ্চল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লাখ ৮৮ হাজার ১৯৭। মৃত্যু হয়েছে ৫৬ হাজার ২৫৯ জনের। আর এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ১১ হাজার ৪২৪ জন। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে ইরানে সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করেছে করোনাভাইরাস। মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় ইরানে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৯১ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। অপরদিকে মারা গেছে ৫ হাজার ৮০৬ জন।

সর্বশেষ সংবাদ