আবারও জলবায়ু বিজ্ঞানকে প্রশ্নবিদ্ধ করলেন ট্রাম্প

অতীতের ধারাবাহিকতায় আবারও জলবায়ু বিজ্ঞানকে অস্বীকার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দাবানল বিধ্বস্ত ক্যালিফোর্নিয়া সফরে গিয়ে তিনি বলেছেন, বিজ্ঞান চূড়ান্ত কিছু নয়। আবহাওয়া ক্রমশঃ ঠাণ্ডা হয়ে আসবে।

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম উপকূলীয় ক্যালিফোর্নিয়া, ওরিগন ও ওয়াশিংটন রাজ্যে আগস্টের প্রথমদিক থেকে শুরু হওয়া দাবানলে এ পর্যন্ত প্রায় ২০ লাখ হেক্টর ভূমি পুড়ে গেছে ও অন্তত ৩৬ জন নিহত হয়েছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার ট্রাম্প দাবানলে ছারখার হওয়া ক্যালিফোর্নিয়ায় সফরে যান।  ব্যাপক দাবানলের ক্ষেত্রে জলবায়ু পরিবর্তন একটি ফ্যাক্টর কিনা, একজন সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, “আমি মনে করি ব্যবস্থাপনা পরিস্থিতিই দায়ী।”

সেখানে  একজন কর্মকর্তা প্রেসিডেন্টের প্রতি ‘বিজ্ঞানকে অগ্রাহ্য না করার’ আবেদন জানান। তবে জলবায়ু পরিবর্তন ঘিরে উদ্বেগকে উড়িয়ে দিয়ে ট্রাম্প ওই কর্মকর্তাকে বলেন, “(আবহাওয়া) শীতল হতে শুরু করবে, আপনি শুধু দেখেন, আমি মনে করি না বিজ্ঞানই চূড়ান্ত।”

পশ্চিম উপকূলের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ঘুরে দেখার সময় ক্যালিফোর্নিয়ার রাজধানী স্যাক্রামেন্টোর কাছে একটি বিরতিস্থলে দাবানলের বিরুদ্ধে লড়াইরত রাজ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ট্রাম্প। এ সময়ও দাবানলের জন্য তিনি দুর্বল বন ব্যবস্থাপনাকে দায়ী করেন।

ট্রাম্প ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানল পরিস্থিতি পরিদর্শন করতে যাওয়ার আগেই এই আগুনের কারণ নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক শুরু হয়ে গিয়েছিল। পশ্চিম উপকূল অঞ্চলের ডেমোক্র্যাটিক গভর্নররা এই দাবানলে জলবায়ু পরিবর্তনের ভূমিকার কথা অস্বীকার করার জন্য ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আগেই অভিযোগ তুলেছিলেন। 

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয় নিশ্চিত হওয়ার পর পরই বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ঠেকাতে ট্রাম্পের ভূমিকা নিয়ে সংশয়ী হয়ে উঠেছিলেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা। তাদের আশঙ্কাকে সত্যি করে ২০১৭ সালের জুনে বৈশ্বিক জলবায়ু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের সমর্থন তুলে নেয়। প্যারিস চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর পক্ষে ট্রাম্পের যুক্তি-এটি মার্কিন স্বার্থবিরোধী।

২০১৮ সালের শুরুতে ব্রিটিশ আইটিভি নিউজের পিয়েরস মরগানকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, বিশ্বের জলবায়ু পরিস্থিতি নিয়ে বিজ্ঞানীরা যা বলেন এবং পরিসংখ্যানে যা উঠে আসে তার সঙ্গে বাস্তবের মিল নেই। ট্রাম্পের দাবি, পৃথিবী একইসঙ্গে উষ্ণ ও শীতল। মেরু অঞ্চলের বরফ গলার খবর সত্য নয় বলেও দাবি করেন তিনি।

 

সর্বশেষ সংবাদ