মনোনয়ন কেন্দ্র করে বিএনপির গুলশান অফিসে সংঘর্ষ

ঢাকা-১৮ আসনের মনোনয়নকে কেন্দ্র করে শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের হাতাহাতির পর দলটির নেতাকর্মীরা এবার গুলশান কার্যালয়ে গিয়ে মারামারিতে লিপ্ত হয়েছে। শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকালে বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডের সভা চলাকালীন কার্যালয়ের বাইরে ঢাকা-১৮ আসনের প্রার্থী হতে আগ্রহী যুবদল নেতা এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিএনপি নেতা কফিল উদ্দীনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিএনপির গুলশান কার্যালয়ের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী জানান, শনিবার বিকাল চারটার দিকে ঢাকা-১৮ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী জাহাঙ্গীর হোসেন ও কফিল উদ্দিনের সমর্থকরা নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটে।

গুলশান থানার ডিউটি অফিসার এস আর অমিত ভট্টাচার্য বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘শনিবার বিকাল সাড়ে চারটার দিকে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের সামনে সংঘর্ষের খবর আসে। এতে কেউ কোনও অভিযোগ করেনি। কোনও গ্রেফতার বা আটকও নেই।’ রাত পৌনে আটটা নাগাদ পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও পুলিশ মোতায়েন আছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা অমিত ভট্টাচার্য।

প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক ছাত্রদল নেতা জানান, কার্যালয়ের বাইরে সমর্থকদের সংঘর্ষের রেশ এসে ছড়িয়ে পড়ে ভেতরে অপেক্ষমাণ মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যেও। ভেতরে কোনও-কোনও প্রার্থীকে উচ্চস্বরে চিৎকার করতে দেখা গেছে। কোনও-কোনও মনোনয়ন প্রত্যাশী কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের কাছে বিচার দাবি করেন।

কফিল উদ্দিনের একজন সমর্থক দাবি করেন, জাহাঙ্গীরের সমর্থকদের হামলায় কফিল উদ্দিনের সমর্থকদের অন্তত ১০-১২ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষের পর কার্যালয়ের ভেতরেও দুই নেতা বাকবিতণ্ডায় লিপ্ত হন বলে দাবি করেন কেউ কেউ।

রাত আটটায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডের সভা চলছিল। ভার্চুয়াল সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সভাপতিত্ব করছেন। সভায় স্থায়ী কমিটির সদস্যরাও অংশগ্রহণ করেছেন।

আরও পড়ুন: বিএনপি কার্যালয়ে ভিড়-বিশৃঙ্খলা

সর্বশেষ সংবাদ